হীরক রাজার দেশে হবুচন্দ্র রাজার গবুচন্দ্র মন্ত্রী: স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে ফকরুল


সকালের-সময় রিপোর্ট ৪ আগস্ট, ২০১৯ ৪:১৬ : অপরাহ্ণ

আজ রোববার জাতীয় প্রেসক্লাবে ডক্টরস এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এ সব কথা বলেন। ‘ড্যাবের ৩০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে’ এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
ডেঙ্গু নিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেকের বক্তব্যে প্রসঙ্গে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, জাহিদ ভাই কিছুক্ষন আগে বললেন, হীরক রাজার দেশ। বাংলাদেশ হীরক রাজার দেশ থেকে নরক দেশ হয়েছে। আর হবুচন্দ্র রাজার গবুচন্দ্র মন্ত্রী।

ফখরুল বলেন, স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেকের বিষয়ে… আপনারা সবাই তাকে চেনেন, ম্যাডামের প্রেস উইং শায়রুল কবির খান আমাকে দুটি লিঙ্ক পাঠালেন। আমাদের স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেছেন, কতজন ডেঙ্গুতে মারা গিয়েছে, উনি তা বলতে পারবেন না। এটা তার জানা নেই। এরআগে উনি বিদেশে যাওয়া আগে বললেন, এডিস মশা রোহিঙ্গাদের মতো। কত বড় অমানবিক এবং কতবড় অমানুষ হলে এধরণের কথা একজন মন্ত্রীর মুখে মানায়।

তিনি বলেন, আরো খবর এসেছে, ডেঙ্গু মশার ওষুধ কার্যকর হচ্ছে না। হবে কোথা থেকে? যে দুর্নীতি তারা করেন, সেখানে কার্যকর হবে কোথা থেকে। এখন নতুন ওষুধ আনতেছে, সেখানে আরো দুর্নীতি হবে।
আর আজকে পত্রিকার বের হয়েছে, দুটি ওষুধ থাইল্যান্ডে নিষিদ্ধ করা হয়েছে, সেগুলো আনা হচ্ছে। আরো দুটি ওষুধ যে আনা হবে, তার কার্যকারিতা সম্পর্কে তারা জানেন না!

তারা আমদানি করছেন, কোলকাতার ডেপুটি মেয়রকে। এই অবস্থায় এই সরকার, এই মন্ত্রী। জাহিদ ভাই কিছুক্ষন আগে বললেন, হীরক রাজার দেশে। হীরক রাজার দেশ থেকে এটা নরক দেশ হয়েছে। হবুচন্দ্র রাজার গবুচন্দ্র মন্ত্রী।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে মির্জা ফখরুল বলেন, কেউ হতাশ হবেন না। আমি অনেকের কথার ভিতরে হতাশা খোঁজে পাই। হতাশ হলে চলবে না। হতাশা ভেঙে আশার আলো নিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হবে। আমাদের হতাশা কাটিয়ে জনগণকে সাথে নিয়ে মাথা উচু করে দাঁড়াতে হবে এবং জনগণকে সঙ্গে নিয়ে এদেরকে পরাজিত করতে হবে।

তিনি বলেন, আমরা অত্যন্ত কঠিন সময়ে বাস করছি। এতো বড় কঠিন সময় বাংলাদেশে আর কখনো আসে নাই। আমার কাছে মনে হয়, ১৯৭১ সালেও আমরা এতোটা অসহায়বোধ করি নাই। ওই সময় সমস্ত রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে ঐক্য ছিল। কিন্তু এখন মনে হয়, সবকিছু ভেঙে তছনছ করে দেওয়া হয়েছে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া কারাগারে। তিনি কোন ন্যায় বিচার পাচ্ছেন না। কারণ এদেশে নুন্যতম ন্যায় বিচার নাই। বিচার ব্যবস্থা সম্পূর্ণভাবে এই অপশক্তি নিয়ন্ত্রণ করছে। ১/১১ প্রেক্ষাপট তুলে ফখরুল বলেন, এখন দেশে কোন রাজনীতি নেই। এখানে রাজনীতি শক্তি বলতে কিছু নেই। এটা সম্পূর্ণভাব। অনেকগুলো ইংরাজি শব্দ ও নাম আছে, কেউ পুলিশ স্টেট এবং কেউ বলে স্বৈরাচার। এখানে জনগণের কোন স্বাধীনতা নেই।

ড্যাবের সভাপতি অধ্যাপক ডা. হারুন আল রশিদের সভাপতিত্বে সভায় বিএনপির বিএনপি নেতা ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন, সিরাজুল ইসলাম, কাদের গনি চৌধুরী প্রমুখ বক্তব্যে রাখেন।

ট্যাগ :

আরো সংবাদ