বিষয় :

বিয়ে এবং সাবেক স্ত্রীকে নিয়ে যা বললেন অপূর্ব


সকালের-সময় বিনোদন ডেস্ক  ৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ১:০০ : অপরাহ্ণ

পারিবারিক আয়োজনে বিয়ে করছেন টেলিভিশন জগতের জনপ্রিয় অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্ব। যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী শাম্মা দেওয়ানের সঙ্গে কাবিন ও বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়েছে তার।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর একটি কনভেনশন সেন্টারে সীমিত পরিসরের আয়োজনে সম্পন্ন হয় তার বিয়ে। কিন্তু এ খবর প্রকাশ্যে আসার পর আলোচনায় উঠে আসেন অপূর্বর প্রাক্তন স্ত্রী নাজিয়া হাসান অদিতি। মূলত, তার দেয়া একটি স্ট্যাটাস অন্তর্জালে ভাইরাল হয়, যা নিয়ে শুরু হয় জোর সমালোচনা।

অদিতি তার এক স্ট্যাটাসে অপূর্বর নাম উল্লেখ না করে বলেছেন, ‘চার বছরের প্রেম সফল হয়েছে’। সবাই ধরে নিয়েছেন, অপূর্ব পরকীয়া করে নতুন এই বিয়ে করেছেন। এমনকি শাম্মার সঙ্গে পরকীয়ার জেরেই নাকি অদিতির সঙ্গে বিচ্ছেদ হয়েছে।

অনেক দিন আগে অপূর্বর সঙ্গে নাজিয়ার বিচ্ছেদ হয়েছে। সবকিছু ভুলে অপূর্ব নতুন করে সংসার শুরু করতে যাচ্ছেন। অন্যদিকে অদিতির বিয়ের খবরও এসেছে প্রকাশ্যে। বৃহস্পতিবার তিনি জানান, চলতি বছরের জানুয়ারিতেই তিনি নতুন সংসার পেতেছেন। সে খবর শুনে আবার অপূর্বের ভক্তরা বলাবলি করছেন, অদিতিই নাকি পরকীয়া করেছিলেন!

এ নিয়ে নানা জল্পনার পর নাজিয়া বলেন,‘অপূর্বর সঙ্গে ৬ মাস আলাদা থাকার পর ডিভোর্স পেপারে সাইন করি। এটা ২০১৯ সালের আগস্টের ঘটনা। আর আমরা ডিভোর্সের খবর প্রকাশ করি ২০২০ সালের মে মাসে। আমার দ্বিতীয় বিয়ের কাবিন হয় চলতি বছরের জানুয়ারিতে।

এসব বিতর্ক আর সমালোচনার বিষয়ে চুপ ছিলেন অপূর্ব। তবে নীরবতা ভাঙলেন বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে। নিজের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে একটি স্ট্যাটাস দিয়ে তার অভিমত তুলে ধরেছেন।

অপূর্ব লিখেছেন, আমার সমস্ত ভক্ত, দর্শক ও শুভানুধ্যায়ীদের আনন্দের সঙ্গে জানাচ্ছি, জীবনের নতুন অধ্যায় শুরু করেছি। শাম্মা দেওয়ান, আমার স্ত্রী, তাকে নিয়েই আমার এই যাত্রা।

ভক্ত ও অনুসারীদের উদ্দেশ্যে তিনি লেখেন, ‘আমার এই নতুন জীবনের শুরুতে আপনাদের ভালোবাসা আমাকে আপ্লুত করেছে। কিন্তু আমার এবং শাম্মার বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক নিয়ে কিছু কিছু অমূলক মন্তব্য আমার নজরে এসেছে যা সম্পূর্ণরূপে অসত্য ও ভিত্তিহীন।

দ্বিতীয় স্ত্রী নাজিয়া হাসান অদিতির প্রসং টেনে অপূর্ব লেখেন, আমার এবং আয়াশের মায়ের (নাজিয়া হাসান) আনুষ্ঠানিক বিচ্ছেদ হয়ে গেছে ২০১৯ সালে। যদিও তা গণমাধ্যমে পরে প্রকাশিত হয়েছে।

খুব স্বাভাবিকভাবে আমরা এই বিষাদময় অধ্যায়ের পর সময় নিয়েছি, ভেবেছি এবং নিজ নিজ পরিবারের সঙ্গে আলাপেও গেছি। আমরা দু’জনই প্রাপ্ত বয়স্ক। আমরা একজন আরেকজনের প্রতি পূর্ণ সম্মান রেখেই আমাদের নিজেদের জীবন পথ বেছে নিয়েছি।

পরকীয়ার বিষয়ে অপূর্ব লেখেন, আমি খুবই দুঃখের সঙ্গে লক্ষ্য করেছি, আয়াশের মায়ের নতুন জীবনের সংবাদ প্রকাশের পর অনেকেই তাকে অপবাদ দিয়েছেন এই বলে যে, তিনি নাকি পরকীয়া করে বিয়ে করেছেন। আমি এটি নিশ্চিত করে বলতে চাই যে এই ধরনের তথ্য একেবারেই মিথ্যা।

অদিতির স্বামীর নাম মাহবুব পারভেজ। অপূর্বর সঙ্গে বিচ্ছেদের এক বছর পর তার সঙ্গে নাজিয়ার পরিচয় হয়। এরপর পারিবারিক আয়োজনে তাদের বিয়ে হয়েছে। অপূর্বর সঙ্গে মাহবুব পারভেজেরও সখ্যতা ভালো।

প্রসঙ্গত, অপূর্ব ২০১০ সালের ১৯ আগস্ট অভিনেত্রী সাদিয়া জাহান প্রভাকে বিয়ে করেছিলেন। মাত্র ছয় মাস পরই ভেঙে যায় সেই সংসার। ২০১১ সালের জুলাইতে অপূর্ব বিয়ে করেন নাজিয়া হাসান অদিতিকে। এই সংসারেই তার পুত্র আয়াশের জন্ম হয়।

এসএস

Print Friendly, PDF & Email

ট্যাগ :

অপূর্ব

আরো সংবাদ