বিষয় :

বন্দী লেখকের মৃত্যু, সোমবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ঘেরাও


সকালেরর-সময় রিপোর্ট  ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ৪:১৪ : অপরাহ্ণ

কারাবন্দী অবস্থায় লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যুর ঘটনায় শাহবাগের বিক্ষোভ থেকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেপ্তারদের মুক্তি ও মুশতাকের মৃত্যুর বিচারের দাবি জানিয়ে কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বামপন্থী ছাত্রসংগঠনগুলো। দাবি মানা না হলে ১ মার্চ (সোমবার) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ঘেরাওয়ের হুমকি দিয়েছেন আন্দোলনকারীরা।

সকাল ১১টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত শাহবাগ অবরোধ করেন বামপন্থী ছাত্রসংগঠনগুলোর নেতাকর্মীরা। এতে লেখক মুশতাকের মৃত্যুর ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত-বিচার, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় গ্রেপ্তার থাকা ব্যক্তিদের মুক্তি ও আইনটি বাতিলের দাবি জানানো হয়।

বাম সংগঠনগুলোর মোর্চা প্রগতিশীল ছাত্রজোটের কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক ও সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের (বাসদ) কেন্দ্রীয় সভাপতি আল কাদেরী প্রতিবাদী কর্মসূচি ঘোষণা করেন। দাবি আদায়ে আজ সন্ধ্যা ৬টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যে ছাত্র-জনতার মশাল মিছিল করবেন তারা।

আল কাদেরী জয় বলেন, অবিলম্বে লেখক মুশতাক হত্যার বিচার করতে হবে। নিরাপত্তা আইন বাতিল করে অবিলম্বে সমস্ত লেখক, কলামিস্ট, ব্লগারসহ যাদেরকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে আটক করা হয়েছে তাদের মুক্তি দিতে হবে।

সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফন্টের সাবেক সভাপতি ইমরান হাবিব রুমন বলেন, আজকে ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা দেশ থেকে পালিয়ে যায়, তারা জামিনে মুক্ত হয়, অথচ সামান্য কিছু লেখার জন্য, সত্য কথা বলার জন্য, সমালোচনা করার জন্য আমরা দেখলাম লেখক মুশতাককে কোনো ধরনের জামিন দেয়া হয়নি। ছয়বার জামিনের আবেদন করার পরও জামিন দেয়া হয়নি।

ছাত্র ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক জাহিদ সুজন বলেন, একটা কথা স্পষ্ট আপনার কথা বলার অধিকার যদি কেড়ে নেয়া হয়, তাহলে আপনি যে মানুষ সেটাও অস্বীকার করা হয়।

সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের (মার্ক্সবাদী) কেন্দ্রীয় সভাপতি মাসুদ রানা অভিযোগ করে বলেন, লেখক মুশতাককে নির্যাতন করা হয়েছে। চিকিৎসা দেওয়া হয়নি। শুধু সমালোচনার জন্য লেখক মুশতাককে হত্যা করা হলো। এই হত্যার দায় বর্তমান সরকারকে নিতে হবে। অবিলম্বে মুশতাক হত্যার সুষ্ঠু তদন্ত করে দায়ীদের বিচার করতে হবে। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল করতে হবে।

গত বছরের মে মাসে র‌্যাবের করা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় গ্রেপ্তার হন লেখক মুশতাক। জানা যায়, গতকাল সন্ধ্যার দিকে কাশিমপুর কারাগারে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে মুশতাককে হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এসএস

Print Friendly, PDF & Email

আরো সংবাদ