বিষয় :

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুর হল সংবিধান ও রাষ্ট্রের ওপর হামলা: আইজিপি


সকালের-সময় রিপোর্ট  ১২ ডিসেম্বর, ২০২০ ১০:৩৫ : অপরাহ্ণ

সংবিধান ও রাষ্ট্রের ওপর আঘাত কঠোরভাবে মোকাবেলার ঘোষণা দিয়ে পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) বেনজীর আহমেদ বলেছেন, বঙ্গবন্ধু সংবিধানের অংশ। বঙ্গবন্ধু দেশ ও পতাকা দিয়েছেন, মানচিত্র দিয়েছেন। তার ওপর হামলা হল সংবিধান ও রাষ্ট্রের ওপর হামলা, জনগণের ওপর হামলা। রাষ্ট্র অবশ্যই তার আইন-বিধির মাধ্যমে এটি কঠোর হস্তে মোকাবেলা করবে। শনিবার সরকারি কর্মকর্তা ফোরামের ব্যানারে কেন্দ্রীয়ভাবে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

ঢাকাসহ সারা দেশে সমাবেশ করে দেশের সরকারি কর্মকর্তারা করেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি কোনো রকমের অবমাননা ও অসম্মান হতে দেবেন না। কোনো ধরনের অবমাননা সহ্যও করবেন না তারা। এসব সমাবেশে নন-ক্যাডার কর্মকর্তারাও উপস্থিত ছিলেন। একইসঙ্গে সারা দেশের জেলা-উপজেলায় এই সমাবেশ করেন সরকারি কর্মকর্তারা।

জাতির পিতার সম্মান, রাখব মোরা অম্লান’ স্লোগান দিয়ে ঢাকায় অনুষ্ঠিত হয় বিশাল সমাবেশ। এতে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস। স্বাগত বক্তব্য দেন বাংলাদেশ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ও স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ।

সমাবেশে সব ক্যাডারের প্রতিনিধিরা বক্তব্য দেন। তাদের মধ্যে ছিলেন পুলিশের মহাপরিদর্শক বেনজীর আহমেদ, বিসিএস কর অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব ফজলে হায়াত কায়সার, বিসিএস উইমেন নেটওয়ার্কের সভাপতি ও খাদ্য সচিব ড. মোছাম্মাৎ নাজমানারা খানুম, বিসিএস শিক্ষা ক্যাডারের পক্ষে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক (ডিজি) সৈয়দ গোলাম ফারুক, বাংলাদেশ জুডিশিয়াল সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব ও আইন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব বিকাশ কুমার সাহা, বিসিএস স্বাস্থ্য ক্যাডারের আ ম সেলিম রেজা, পররাষ্ট্র ক্যাডারের সৈয়দ মাসুদ মাহমুদ খন্দকার, আনসার ক্যাডারের শামসুল আলম, তথ্য ক্যাডারের শ ম গোলাম কিবরিয়া প্রমুখ। সমাবেশে কয়েক হাজার কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

আইজিপি বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যে যে ন্যক্কারজনক হামলা হয়েছে, রাতের অন্ধকারে যারা ভাংচুর করেছে, সেই পিশাচদের প্রতি আমাদের তীব্র ঘৃণা ও নিন্দা প্রকাশের ভাষা নেই। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশ যখন এগিয়ে যাচ্ছে, তখন আমরা দেখেছি বারবার দেশটাকে পেছনের দিকে টেনে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা হয়েছে।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু আমার দেশের সংবিধানের অংশ। বঙ্গবন্ধু মানে বাংলাদেশ, বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশের মানচিত্র দিয়েছেন, দিয়েছেন বাংলা ভাষার স্বীকৃতি। বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের ওপর হামলা মানে সংবিধানের ওপর হামলা, রাষ্ট্রের ওপর হামলা, দেশের জনগণের ওপর হামলা।

পুলিশপ্রধান বলেন, আমি প্রতিবাদের কথা বলব না। কারণ আমরা সরকারের অংশ। রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে, দেশের বিরুদ্ধে, জনগণের বিরুদ্ধে যে কোনো ধরনের হামলা- আমরা অবশ্যই এ দেশের প্রচলিত আইন আছে, এর মাধ্যমে মোকাবেলা করব। রাষ্ট্র অবশ্যই তার যে বিধিবিধান আছে, দেশের যে আইন আছে, সেটির মাধ্যমে তাদেরকে কঠোর হস্তে মোকাবেলা করবে।

আমরা রাষ্ট্রের কর্মচারী হিসেবে, রাষ্ট্রের অংশ হিসেবে ১৮ কোটি মানুষকে নিশ্চিত করতে চাই, আশ্বস্ত করতে চাই, আমরা তাদেরকে কঠোর হস্তে মোকাবেলা করব। বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুর রাষ্ট্রের বিরুদ্ধাচরণ, সংবিধানের বিরুদ্ধাচরণ।

এসএস

Print Friendly, PDF & Email

আরো সংবাদ