উইঘুর মুসলিম নির্যাতন, চীনকে শাস্তি দিতে মার্কিন সিনেটে বিল পাস


সকালের-সময় বিশ্ব ডেস্ক ২৮ মে, ২০২০ ৭:৪৫ : অপরাহ্ণ

চীনের পশ্চিমাঞ্চলীয় শিনজিয়াং প্রদেশে উইঘুর মুসলিমদের বিনাবিচারে বন্দী করে রাখা, তাদের ওপর নির্যাতন চালানো ও হয়রানি করার কারণে চীনের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের প্রস্তাব দিয়ে একটি বিল পাশ করা হলো। চীনকে টার্গেট করে এক সপ্তাহের ব্যবধানে এরকম দুটো বিল পাস হলো।

নামাজরত অবস্থায় উইঘুর মুসলিমরা

কদিন আগে হংকংয়ে চীন বিরোধী বিক্ষোভের সমর্থনে একটি আইন পাস করা হয়, যা নিয়ে ক্ষুব্ধ বেইজিং পাল্টা ব্যবস্থা হিসাবে হংকংয়ে কোনো মার্কিন সামরিক জাহাজ এবং ফ্লাইট নিষিদ্ধ করেছে। উইগারদের নিয়ে নতুন আরেকটি আইন পাশের উদ্যোগে ক্ষিপ্ত বেইজিং বলেছে, আমেরিকা চীনের অভ্যন্তরীণ ইস্যুতে সরাসরি নাক গলাচ্ছে।

চীনা পুলিশ নির্যাতন করছেন উইঘুর মুসলিম নারীদের

মার্কিন পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদে মঙ্গলবার রাতে বিলটি উত্থাপন করা হলে এর পক্ষে ৪০৭টি ভোট পড়ে। বিপক্ষে পড়েছে মাত্র একটি ভোট। চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য বিলটি এখন সেনেটে যাবে। তারপর প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সই করলে সেটি আইনে পরিণত হবে। বিলটিতে শিনজিয়াং-এ কমিউনিস্ট পার্টির সেক্রেটারি চেন কোয়াংগোসহ চীন সরকারের শীর্ষস্থানীয় কয়েকজন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপের কথা বলা হয়েছে।

বিভিন্ন দেশে উইঘুর মুসলিমদের নির্যাতনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল

যুক্তরাষ্ট্রের দাবি, ওই এলাকায় অন্তত ১০ লাখ মুসলিমদের ক্যাম্পে বন্দী করে রাখা হয়েছে। ওই অঞ্চলের কমিউনিস্ট পার্টির সেক্রেটারি ও চীনের পলিটিক্যাল ব্যুরোর ক্ষমতাশালী সদস্য চেন কুয়ানগুয়োকে ‘ব্যাপক মানবাধিকার লঙ্ঘন’-এর জন্য দায়ী করা হয়েছে। বিলের পক্ষে মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি বলেছেন, উইঘুর জনগণের ওপর বেইজিংয়ের বর্বর আচরণ বিশ্ব-বিবেকের চূড়ান্ত অবমাননা।

প্রতিনিধি পরিষদে প্রায় সর্বম্মতিতে পাস হওয়ার পর সিনেটেও সর্বসম্মতভাবে পাস হয়েছে উইঘুর বিল। ফলে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ওপর চীনের ওপর নিষেধাজ্ঞায় অনুমোদনের বিষয়ে ব্যাপক চাপ সৃষ্টি হয়েছে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। তবে করোনাভাইরাস ইস্যুতে চীনের সঙ্গে সম্পর্কের অবনতি হওয়ায় তিনি সহজেই এ বিলের অনুমোদন দেবেন বলে বিশ্বাস তাদের।

সূত্র: আল জাজিরা

Print Friendly, PDF & Email

আরো সংবাদ